বরকলে করোনা সন্দেহে ৯জনের নমুনা সংগ্রহ

0

 

বিশ্বজুড়ে ছড়িয়ে পড়েছে প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাস। বাংলাদেশও এর বাইরে নয়। ইতিমধ্যেই আক্রান্তের সংখ্যা ছাড়িয়েছে ২৫ হাজার, আর মৃত্যুর সংখ্যা দাড়িয়েছে ৩৭০ জন। আক্রান্তের তালিকায় যুক্ত হয়েছেন রাঙ্গামাটি জেলাও। তাই এবার সুরক্ষার প্রাচীর দ্বিগুন করেছেন বরকল উপজেলার দ্বায়িত্বরত উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এস এম মনজুরুল হক। বিগত দিনে যারা রাঙ্গামাটি জেনারেল হাসপাতালে করোনা আক্রান্ত নার্স কিংবা ডাক্তারদের সংস্পর্শে ছিলেন বলে ধারনা করা হয়েছিল তাদের মধ্যে ভুষনছড়া ইউনিয়ন হতে ৯ জনের নুমনা সংগ্রহ করা হয়েছে।

techchtbd

মঙ্গলবার (১৯শে মে) বরকলের ভুষনছড়া ইউনিয়নের এরাবুনিয়াতে বরকল উপজেলা সদর হাসপাতালের ল্যাব ট্যাকনোলজিস্ট জুলি চাকমার নেতৃত্বে চার সদস্যের একটি মেডিক্যাল টিম করোনায় আক্রান্ত সন্দেহে ৯ জনের নমুনা সংগ্রহ করেন।

এসময় ভুষনছাড়া ইউনিয়ন পরিষদের পক্ষ থেকে উপস্থিত ছিলেন ৫ নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য মোঃ আব্দুস সবুর তালুকদার, ইউনিয়ন করোনা প্রতিরোধ কমিটির সদস্য মোঃ আরিফুল ইসলাম, মোঃ শামসুল আলম, এরাবুনিয়া বাজার কমিটির সভাপতি মোঃ আল আমিন।

এ বিষয়ে মোঃ মামুনুর রশীদ মামুন জানান, বরকল উপজেলাকে করোনা মুক্ত রাখতে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এস এম মনজুরুল হক স্যারের প্রচেষ্টা সত্যি প্রশংসনীয়। তিনি করোনা দুর্যোগকালের শুরু থেকেই বিভিন্ন ধরনের পদক্ষেপ গ্রহন করছেন। তার সেসব উল্লেখযোগ্য পদক্ষেপ গুলোর মধ্যে ছিলো সাধারন মানুষের মাঝে গনসচেতনতা বৃদ্ধি, উপজেলার সাধারণ মানুষের সাস্থ্য সুরক্ষা নিশ্চিত করা, লিফলেট, মাস্ক বিতরন, সচেতন মূলক মাইকিং ও হ্যান্ড সেনিটাইজার বিতরন, বিভিন্ন এলাকায় মশার ঔষধ ছিটানো এবং মানুষের কাছে প্রধানমন্ত্রীর উপহার পৌছায় দেওয়া। তার সহযোগীতায় ভবিষ্যতে অত্র ভুষনছড়া ইউনিয়নে ভবিষ্যতে যে কোন ধরনের দুর্যোগ মোকাবেলায় আমরা প্রস্তুত রয়েছি ইনশাআল্লাহ।

তিনি বরকল থেকে আসা মেডিক্যাল টিমকে এই প্রখর রোদ্র আর শুকনো মৌসুম উপেক্ষা করে সহযোগিতার জন্য ছুটে আসায় আন্তরিক ধন্যবাদ জানিছেন।

 

আরো পড়ুন-

Share.

Leave A Reply